ভূরুঙ্গামারীতে প্রতিবন্ধিকে পানিতে চুবিয়ে হত্যা

ভূরুঙ্গামারী প্রতিনিধি : ভূরুঙ্গামারীতে খোকন নামের এক প্রতিবন্ধী যুবককে পানিতে ডুবিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।
জানা যায় যে, প্রতিবন্ধি যুবক খোকন পাইকারছড়া গ্রামের আমজাদ হোসেনের ছেলে। শনিবার বিকালে পাটেশ্বরী বরকতিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে স্থানীয় যুবকদের ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত হয়।
খেলার সময় মানসিক প্রতিবন্ধী খোকন মিয়া কয়েকবার মাঠের মধ্যে দৌড়াদৌড়ি করে। এতে বিরক্ত হয়ে মাঠে খেলতে থাকা পাইকেরছড়া ইউপির বেলদহ গ্রামের সাইফুর রহমানের পুত্র জিল্লুর রহমান, তৈয়বুর রহমান মাষ্টারের পুত্র তোফায়েল হোসেন,সাবেক ইউপি সদস্য খোকা মিয়ার পুত্র নবীন হোসেনসহ কয়েকজন ওই মানসিক প্রতিবন্ধি খোকনকে ধরে মাঠের পাশের পুকুরে উপর্যপুরি চুবাতে থাকে।

একপর্যায় খোকনের মৃত্যু ঘটে। পরে খোকনের মরদেহ পুকুর পাড়ে রেখে পালিয়ে যায় তারা। স্থানীয়রা খোকনের লাশ দেখতে পেয়ে বাড়িতে সংবাদ দিলে বিষয়টি সবার নজরে আসে। পরিবারের লোকজন গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসলে,ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলাম ও চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক সরকার বিষয়টি স্থানীয় ভাবে মিমাংসার চেষ্টা চালায়।
এদিকে পুলিশ সংবাদ পেয়ে রাত ৩টায় খোকনের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে এবং একটি হত্যা মামলা দিয়ে রবিবার সকালে লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করে।
ভূরুঙ্গামারী থানার ওসি ইমতিয়াজ কবির জানান, পুলিশ একটি মামলা করে, লাশ মর্গে পাঠিয়েছে। লাশের পুনাঙ্গ রিপোর্ট পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।