রাস্তায় দুর্ঘটনা রোধে প্রয়োজন সচেতনতা

সাম্প্রতিক সময়ে রাস্তায় দুর্ঘটনা যেন নিত্য সঙ্গী। অকালে ঝরে যাচ্ছে শত শত প্রাণ। গত ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে ঘরমুখী মানুষ এবং কাজে ফেরা মানুষের অনেককেই ফিরতে হয়েছে লাশ হয়ে। রাস্তায় বের হলেই মনে যেন এক আতঙ্ক কাজ করে -সুস্থতার সাথে ঘরে ফিরতে পারবো তো! কিছু জাতীয় দৈনিকের তথ্যমতে ২২ জুন ২০১৮ ঢাকামুখী গাড়ি দুর্ঘটনায় প্রায় ৫০ জন প্রাণ হারিয়েছেন।

শুধু মহাসড়কেই নয়, আজকাল গ্রামের রাস্তাতেও দুর্ঘটনার ছড়াছড়ি। গতকাল ভূরুঙ্গামারী উপজেলার বঙ্গসোনাহাট ইউনিয়নের সাবে ইউপি সদস্য জনাব মোঃ আব্দুল মজিদ প্রাণ হারিয়েছেন সড়ক দুর্ঘটনায়। তথ্যমতে একটি পিক-আপ ভ্যান পেছন থেকে ধাক্কা দিলে তিনি গুরুতর আহত হন এবং হাস্পাতালে নেয়ার পথে মৃত্যু বরণ করেন।

প্রতিদিন এমন শত শত দুর্ঘটনা কেড়ে নিচ্ছে তাজা প্রাণ, তারপরও কি আমরা সচেতন? প্রশিক্ষণ বিহীন চালক, লাইসেন্স বিহীন গাড়ি চালক, মাদকাসক্ত চালক, অসচেতন পথচারী, সরু রাস্তা এবং অভারটেক করার প্রতিযগিতাই এসব দুর্ঘটনার মূল কারণ। তবে দুর্ঘটনার প্রথম কারণ অসচেতনতা। সঠিক আইনের প্রয়োগ এবং সচেতনতাই পারে এসব দুর্ঘটনা থেকে আমাদের মুক্তি দিতে।

আসুন আমরা সচেতন হই, আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হই, নিরাপদ থাকি।

-সাখাওয়াত স্বপন
সম্পাদক, ভূরুঙ্গামারী ডটকম